www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

উবার ২২৬১ - এ লাভ স্টোরী

ভালবাসার গল্প : উবার ২২৬১
[ শেষ পর্ব ]

নয়
সেদিনের হাতিরঝিল ড্রাইভে ইভানের কাছে তার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা শুনে একটা বিষয় শেয়ার করেছিল আভা | কথার পৃষ্ঠে কথায় সম্মতিও মিলেছে অনেকটা |

- আপনার জন্যে যদি একটা জবের ব্যাপারে রিকমেন্ডেশন করি, তাতে কি আপনার কোনো অবজেকশন আছে ?
- আমাকে হুট্ করে কেউ চাকুরী দেবে ?
- দেখি না , কেউ দেয় কিনা ! ঢাকা শহরে কি মেয়েদের কোনো ক্ষমতা নেই ?
- আমি কি সেই কথা বলেছি ম্যাডাম ?
- তাহলে কি আমি আপনার একটা রিজিউমি পেতে পারি ?
- ইয়েস অফকোর্স , হোয়াই নট ? একটু এডিট করে কালকেই পাঠিয়ে দেবো |

আজ এক সপ্তাহ হয়ে গেলো , ইভানের সিভি পাঠানোর কোনো খবর নেই | ব্যাপারটা কি ? তাহলে কি ওর চাকুরী করার কোনো ইচ্ছে নেই | ড্রাইভিং কি কোনো অনারেবল জব ? ভালো ফ্যামিলির এডুকেটেড ছেলেরা কি বাংলাদেশে এই জব করে ? এইসব নানান চিন্তা মাথায় নিয়ে জুসের গ্লাসে চুমুক দিচ্ছে আর ফাইলে চোখ বুলাচ্ছে আভা | কোম্পানির চেয়ারম্যান জামালুদ্দিন স্যারের সাথে কথা বলে বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার শূন্য পদে ইভানের ব্যাপারে চিন্তা করে রেখেছে আভা | এই পোস্টে ওকে অনেক মানাবে , ইংরেজিতে এক্সপার্ট , স্মার্ট , বিদেশী ডিগ্রী সবকিছুই ইভানের দখলে | এইসব ভাবতে ভাবতে জুসের গ্লাস শেষ করে ইন্টারকমে হাত রাখলো সে |
- লিজা, ড্রাইভারকে বলো গাড়ি রেডি করতে, আমি একটু বাইরে যাবো |
- জি ম্যাডাম |

দশ
গাড়িতে শ্রীকান্তের গান ছেড়ে ফেসবুকে চোখ বুলাচ্ছে আভা | আপনজনের হাসিমাখা চাইল্ডিশ পোস্ট আভাকে অনেক টানে | মানুষ তার অপ্রত্যাশিত পাওয়া তৃপ্তির হাস্যোজ্বল ছবি, কিছু কথা সবার সাথে শেয়ার করতে চায় | বেছে বেছে বিশজনকে সিলেক্ট করেছে আভা | এর বেশি কাউকেই পছন্দ হয়না ওর | ফেসবুক এখন এতোই সস্তা হয়ে গেছে যে, ফেসবুকে আমার একাউন্ট আছে বলতেই আভার লজ্জা হয় ! | এইতো সেদিন , সেকান্দার সাহেবের ফ্রেন্ড রিকুয়েস্ট পেয়ে একচোট নিয়েছিল আভা |
- সেকান্দার সাব, আপনার কি মনে হয় , অফিসের বাইরে আপনি আমার ফ্রেন্ড হওয়ার যোগ্য ? কিংবা আমি সেটা একসেপ্ট করবো ? এ'ধরণের চিপ কাজ আর কখনোই করবেন না |

ফেসবুকের হোম পেজে নানান খবর পড়তে পড়তে হঠাৎ গাড়ি জোরে ব্রেক কষলো | সম্বিৎ ফিরে পেলো আভা |
- কি ব্যাপার ইব্রাহিম ?
- ম্যাডাম, সামনে গন্ডগোল মনে হচ্ছে | গাড়ি ঘুরাতে হবে !
- কি হয়েছে ?
- সেটা বোঝা যাচ্ছে না ! গাড়ি ঘোরানোর জায়গাও তো নেই ..! কি মুশকিল !
- একটু নেমে দেখো তো !
- জি ম্যাডাম !

গাড়ির সুইচ অন রেখেই ইব্রাহিম সামনে গিয়ে কিছু একটা জানার জন্যে সামনে এগিয়ে গেলো | গাড়িতে বসে কিছু হাতাহাতির দৃশ্য চোখে পড়লো আভার | গাড়ির দিকে দৌড়ে আসছিলো একটা মেয়ে | জানালা খুলে আভা জানতে চাইলো ,কি ঘটনা সামনে ?
- কি ব্যাপার সামনে আপা ?
- কি বলবো ম্যাডাম ? ঢাকা শহরে টাউটে চিটারে ভরে গেছে |
- ঘটনা কি ?
- সুন্দর ড্রেসআপ করে, ইংরেজিতে কথা বলে, স্টাইল করে চুল রাখে | ধাপ্পাবাজটাকে আজকে পেয়েছি হাতের কাছে |

আভার গলা শুকিয়ে এলো মনে হয় ! গাড়ি খুলে সামনে এগিয়ে গিয়ে ব্যক্তিটাকে দেখার চেষ্টা করলো | ইব্রাহিম এসে বলতে শুরু করলো -
:- কি বলবো ম্যাডাম, আমাদের ড্রাইভারদের মান-ইজ্জত আর থাকলো না |

আভা এক পা দুই পা করে সামনে এগিয়ে যায়, আর ঘামতে থাকে ! না খুব একটা বেশীদুর যেতে হয়নি আভার ! এ তো ইভান ! কিভাবে সম্ভব ? দশ-বারোজন ছেলে মিলে ওকে চড়-থাপ্পড় , কিল-ঘুষি মেরে যাচ্ছে | শার্টের বোতাম ছিঁড়ে বের হয়ে গেছে বুক | দুটো মেয়ে স্যান্ডেল হাতে ধুমছে পেটাচ্ছে ইভানকে | এই দৃশ্য আজকে আভাকে দেখতে হবে, সে কোনোদিন কল্পনাও করেনি ! তাহলে কি ইউনাইটেড হসপিটালে আম্মুর ভর্তি , এক লক্ষ টাকা , আমেরিকান ডিগ্রী, গাড়িতে চাবি পাওয়া সব মিথ্যে | আইসিউতে সোহেলী ফেরদৌস তাহলে সাজানো ! এটাতো সত্যি , আইসিউর রোগী দেখে কাউকে সনাক্ত করা সম্ভব নয় ! তা ছাড়া , ঐসময় ইভান বলেছিলো , সে একটা কাজে আটকে আছে ! আসতে দেরী হবে ! ইভান কেন এ'রকম করলো ? আভা কোনো কিছুই বুঝে উঠতে পারছে না ! হাতের টিস্যুটা কপালের ঘাম মুছে দিচ্ছে বারবার | ঐতো মেয়েটা দুজন পুলিশ অফিসারকে নিয়ে আসছে | ওয়াকিটকি হাতে |
- দেখি , আপনারা সাইড দেন | ক্রিমিনালকে আমাদের হাতে তুলে দিন |
মেয়েটা রাগতস্বরে বলেই যাচ্ছে , আমার আপুর জীবনটা নষ্ট করে স্টাইল মেরে বেড়াচ্ছিল | ভেবেছিলো, চিনতে পারবো না ! বদমাইশটার আজ একদিন তো আমার একদিন !!

আভা আস্তে আস্তে গাড়ির সামনে এসে দাঁড়ায় | দরজা খুলে গাড়িতে বসে | ইব্রাহিমকে গাড়ির এসিটা বাড়িয়ে দিতে বলে |
- গানটা বন্ধ করো ইব্রাহিম |
- জি ম্যাডাম !
- মোবাইলের সুইচ অফ করে গাড়ি চালাবে ইব্রাহিম ! আমি কোনো সাউন্ড শুনতে চাই না !
- জি ম্যাডাম ! একটা কথা বলবো ম্যাডাম ?
- কি ?
- আপনার কি শরীর খারাপ লাগছে ?
- না !

গাড়ি গুলশানের গ্লাস হাউসের সামনে এসে দাঁড়ালো ! গাড়ি থেকে নামতেই মুখোমুখি লস্কর সাহেবের সঙ্গে |
- এই যে মিস আভা ! আপনাকে ধন্যবাদ ! সত্যি , আপনি যে ভুল করবেন না , সেটা আমার কনফিডেন্স ছিল ! চাইনিজ কোম্পানি উল্টো বেশী দামেই আমাদের প্রোডাক্ট কিনে নিলো ! থাঙ্কস এ লট মিস আভা !
- জি থাঙ্কস !
- আপনাকে খুব আপসেট দেখাচ্ছে মিস আভা !! এনি প্রব্লেম ?
- নো, আই এম ফাইন |

লিফটের দিকে পা বাড়ালো আভা | লিফটে ও একা | একবার নিজের দিকে তাকিয়ে খুব কাঁদতে ইচ্ছে করছে ওর | অফিসের পার্সোনাল ওয়াশরুমে ঢুকে আভা সত্যি সত্যি কিছুক্ষন কান্না করলো | কাঁন্না করলে নাকি মানুষকে হালকা লাগে | ভালবাসা কি মানুষকে কাঁদায় ?? -- শেষ |
বিষয়শ্রেণী: গল্প
ব্লগটি ৫৪ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ১২/১০/২০১৯

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

  • পরিতোষ ভৌমিক ২ ২৬/১০/২০১৯
    আগেও পড়েছি আজকে শেষটা পড়লাম । আভার সুন্দর পরিপাটি জীবনে ইভানদের মতো ভদ্র বেশি মানুষের অভাব নেই আজকাল । এই সুন্দর বাস্তব কাহিনীর দক্ষ উপস্থাপনায় আপনার এই "উবার ২২৬১" গল্প মোহিত করেছে আমায়, মোহিত করবে পাঠককে নিঃসন্দেহে । অনেক শুভেচ্ছা জানবেন ।
  • এইচ আর মুন্না ২৬/১০/২০১৯
    সত্যিই ভালোবাসা মানুষকে কাঁদায়
    শুভ কামনা রইল
  • সুন্দর
  • ভালো।
 
Quantcast