www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

জীবন আলোয়

সারা আকাশ কালো মেঘে ছেয়ে গেছে । মনে হচ্ছে এক্ষুনি বৃষ্টি নামবে । শেষ ট্রেনের প্যাসেঞ্জারের অপেক্ষায় না থেকে সমীর তার রিক্সা নিয়ে বাড়ির দিকে রওনা দিল । রাস্তার বাতিগুলো আজ ঠিকমত জ্বলছে না । রাস্তা বেশ অন্ধকার । চৌমাথা পেরিয়ে পালপাড়ার মোড় ঘুরতেই মাদার ডেয়ারির গুমটির পাশ থেকে হঠাৎ একটা গোঙানির আওয়াজ কানে এল সমীরের । রিক্সা দাঁড় করিয়ে লাইটার জ্বালিয়ে একটু এগিয়ে যেতেই সমীর চমকে উঠল । আরে, এ তো বুবি । যুবতী মেয়ে । কথা বলতে পারে না । বছর খানেক হল এখানে এসেছে । কিন্তু কোথা থেকে এসেছে কেউ জানে না । পাঁচজনের ভিক্ষান্নেই দিন গুজরান করে । রাতের বেলায় রাস্তার পাশে কোন চালার নীচে আশ্রয় নেয় । কিন্তু কি হয়েছে ওর এখন?  সমীর জিজ্ঞাসা করে- “এই কি হয়েছে রে তোর ?” মেয়েটি আ-আ করে ওর বিশাল পেটটা দেখায় । সমীরের বুঝতে আর বাকী রইল না । নিশ্চয়ই কোন পাষণ্ডের কাজ । প্রসব যন্ত্রণায়  ছটপট করছে । এক্ষুনি হাসপাতালে না নিয়ে গেলে অবস্থা খুব খারাপ হতে পারে ।  মেয়েটির অবস্থা দেখে সমীরের ভীষণ মায়া হল । তাকে এইভাবে রাস্তায় ফেলে রেখে যেতে পারল না সে । সাতপাঁচ না ভেবে আর দেরী না করে তাকে পাঁজাকোলা করে ধরে রিক্সায় চাপিয়ে সমীর সোজা সদর হাসপাতালের দিকে ছুটল । হাসপাতালের এমারজেন্সিতে নিয়ে যেতেই সেখানে মেয়েটিকে প্রথমে ভর্তি নিতে অস্বীকার করল । তারপর সেখানে ডিউটিতে থাকা ডাক্তার নার্সদের অনেক অনুনয়-বিনয় করে বন্ডে সই করে বুবিকে ভর্তি করে দিল ।  ঘণ্টা দুয়েকের মধ্যেই সমীর খবর পেল বুবি এক কন্যা সন্তান প্রসব করেছে । সিজার করতে হয়েছে । বেশ কিছু টাকা কালই হাসপাতালে জমা দিতে হবে । তবুও সমীরের কাছে এটাই সান্ত্বনা যে একটা প্রাণ আলোর মুখ দেখল, জীবন পেল ।

ভোরের আলো ফুটতেই রিক্সা নিয়ে সমীর ছুটে চলল তার বাড়ির দিকে । সারা রাত তার স্ত্রীর যে কি অবস্থা গেছে তা সমীর সহজেই অনুমান করতে পারছে । আজ পর্যন্ত সে কোন দিন রাতের বেলায় বাড়ির বাইরে থাকেনি । সে ছাড়া বাড়িতে আর দ্বিতীয় কেউ নেই । তারা নিঃসন্তান । বাড়িতে ঢুকতেই স্ত্রী কমলা তাকে দেখেই কাঁদতে শুরু করে দিল । সমীর তার স্ত্রী কমলাকে রাতে ঘটে যাওয়া সম্পূর্ণ ঘটনাটা বলতেই কমলার চোখের কোণদুটো চিকচিক করে উঠল । মুহূর্তের মধ্যে আনন্দে আত্মহারা হয়ে বলে উঠল – “হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দিলে মা বাচ্চা দু’জনকেই এখানে নিয়ে আসব আমরা । বাচ্চাটাকে আমি মানুষ করব গো”।  


********
বিষয়শ্রেণী: গল্প
ব্লগটি ২৮১ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ৩০/০৬/২০১৭

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

 
Quantcast