www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

ভাবুকের খেরোখাতা-১

এসব আমার অগোছালো চিন্তা,
এলোমেলো ভাবনা;
আপনার মতের সাথে নাও মিলতে পারে।



১.
মনে যা আসে বলে ফেলুন।
কখনোই তা জমিয়ে রাখবেন না,
অতিরিক্ত কথা জমে গেলে মানুষিক বিপর্যস্ত ঘটতে পারে আপনি যা করছেন,
যা ভাবছেন,
যা করবেন;
সেটাকে সুষ্ঠমতে শেষ করে সাফল্য পেতে বিশ্বাস্ত লোকজনের পরামর্শ নিন।
আপনি শঙ্কামুক্ত সঠিক সমাধান পাবেন।

২.
বই হচ্ছে অক্ষর জানা মানুষের সবচেয়ে কাছের বন্ধু।
বন্ধুদের সাথে অবসর কাটাতে গেলে আপনার কিছু আর্থিক লোকসান হতে পারে কিংবা জড়িয়ে পড়তে পারেন অপর্কমে।
কিন্তু একটা বই আপনাকে কখনোই খারাপ উপদেশ দিবেনা আপনার থেকে কিছু চাইবেনা,
শুধু তাকে অবসরে চোখে রাখবেন-বিনিময়ে আপনি হবেন জ্ঞানী-গুনীদের একজন।
তাই অবসরে বই পড়ুন, বই আপনাকে সম্ভাবনাময় একটি ভবিষ্যত উপহার দিবে।

৩.
প্রেম কখনোই মানুষের জীবন হতে পারে না।
কারন,
প্রেম মানুষের ভাবনা শক্তির নিয়ন্ত্রনে ইচ্ছা আর আকাঙ্খার সাথে উঠানামা করে;
যারা নিজেদের ভাবাবেগ আয়ত্ত্বে রাখতে পারে তারাই প্রেমে সফল বা ব্যর্থ!
এই কারনে কারো জীবনে মৃত্যুর প্রভাব পড়েনা,
প্রেম বিরহ ব্যতিত যেকোন শারীরিক ক্রটি মানুষের মৃত্যুর কারন।

৪.
মানুষ জগতের শ্রেষ্ঠ জীব কেন জানেন?
মানুষ ভুল থেকে বেরিয়ে আসতে দ্বিগুন ভুল করেন।
আর পশু ২য় ভুল হওয়ার আগেই দেহ ত্যাগ করেন।

৫.
ধর্ম হচ্ছে,
নিরাপদ শান্তিময় জেলখানা।
অনুসারীরা হচ্ছে জন্মগত বাধ্য কয়েদী।
তারা কখনোই নিজেদের মাঝে বিদ্বেষ বা দলাদলি করেনা।
যারা ধর্মের নামে হানাহানি কাটাকাটি করে তারা কেউ ধর্মের জেলখানার কয়েদী নয়।
তারা হলো,
অপরাধ প্রবণ আসামী অরাজকতার রেকর্ড করে শেষ বয়সে মসজিদ, মন্দির, গির্জা অথবা প্যাগোডায় আশ্রয় নিয়ে ধর্মের সম্মান নষ্ট করে।

৬.
আমরা সকলেই চরম মিথ্যুক আর ধূর্ত!
কেননা,
আমরা কখনোই নিজের দুর্বলতা আর অসুস্হ্যতার কথা সহজেই প্রকাশ করতে চাইনা।
কথার উপর কথা বলে সত্যতা এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করি।

৭.
কল্পনিক চরিত্রের ঘটনা সাঁজিয়ে তাতে ডাল-পালা, শাখা-উপশাখা বানিয়ে সুন্দর করে লিখে উপস্হাপন করাটাই যদি বাস্তববাদী লেখকের বাস্তবতার নিদর্শন হয়।
তাহলে অবাস্তব লেখক কারা?
-মগজে জট লেগে যাবে একটু ভাবুন তো!!

৮.
সরকার তরুণদের উন্নতির জন্য কোটি কোটি টাকা খরচ করছে,
নিশ্চয় এটি দেশ স্বাধীনের পর এই প্রথম তরুণদের জন্য ভাল উদ্যোগ।
তবে, ষাট উর্দ্ব নেতারা ১৮ থেকে ৪০ বছরের তরুণ/যুবকদের বেকারত্বের সমাধান না করে কৃতদাসের মত প্রবাসে পাঠিয়ে কোটি কোটি টাকার সুন্দর প্লান, ম্লান করছে।

৯.
পীর বাবার তাবিজে সন্তান হয় নাই!
-ব্যাটা জঘন্য পাপী।
ঠাকুরের ঝাড় ফুঁকেও হয় নাই!
-অভিশপ্ত কালের দোষ।
ফাদারের পবিত্র পানিও কাজ করে নাই!
-ডেভিলের চক্রান্ত।
এভাবেই সমাজের প্রতিটি সেক্টরে কুসংস্কারে জরাজীর্ন হচ্ছে প্রতিদিন,
উক্ত বর্ণনার মহিলা/পুরুষ উভয়ে সন্তান জন্ম দেওয়ায় অক্ষম ছিলেন।

১০.
গভীর রাতে নারীরা একাকী হেটে যাবে যে যার কাজে,
কেউ তাদের বিরক্ত করবে না কু-নজরে তাকাবে না।
কেউ হবেনা ধর্ষিতা।
দেশের সকল মানুষ মিলেমিশে থাকবে কেউ রাজনৈতিক কারনে লাঞ্ছিত হবেনা।
হবেনা খুন।
কেউ খাবেনা ঘুষ করবেনা ডিমান্ড ফাইলের সাক্ষরে!
অপসংস্কার মুক্ত বাংলাদেশ দেখার অপেক্ষায় একজন আশাবাদী বাঙালী.....
বিষয়শ্রেণী: অভিজ্ঞতা
ব্লগটি ১১১ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ০৭/১২/২০১৯

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

  • আমরাও আশায় বুক বাধি।
    • নুরহোসেন ০৮/১২/২০১৯
      আমরা আশাবাদী বলে, হাজার অনিয়ম তোয়াক্কা না করে দিব্যি বেঁচে আছি এটাই মিরাকেল!
 
Quantcast