www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

হিয়ার দাহ্যে প্রিয় পর্ব ৪

#হিয়ার_দাহ্যে_প্রিয়
#তাবেরী ইসলাম
#পর্ব ৪

ওয়াশরুমের দিকে পা বাড়াতেই চোখ পড়লো সোফার টেবিলে একটা কাগজ। হাতে নিতেই দেখলো রিমুর চিরকুট।

আমি বাহিরে হাটতে যাচ্ছি। চিন্তা করবেন না। আপনি নাস্তা করে নিয়েন।

সিয়াম ভাবছে রাগটা কি বেশি হয়ে গেল ওর প্রতি??
এর মধ্যে আসলো নুহার কল। সিয়াম ব্যস্ত হয়ে বললেন এত সকাল কি হলো শুনি??

আমি ভাবির সাথে আজও আড্ডা দিচ্ছি ভালোই লাগছে। সিয়ামের কথা জানতে চাইলে বলে দেই উনি ট্রেনিং এর জন্য এসেছেন তাই ব্যস্ত।

আমি উনার থেকে দুরে থাকার চেষ্টা করছি।আজ বিকেল ভিচে লুবনা ভাবি আর ভাইয়া সাথে দেখা হয়ে গেল। তাই সিয়ামের সাথে পরিচয় করিয়ে দেই।

তিক্ত বিরক্ত যাই হোক মানুষের একটা সামাজিক জীবন আছে সেটা মানতেই হবে। আমি আর ভাবি হাটছি পিছনে বাচ্চাদের সাথে।

সন্ধ্যায় গানের আয়োজন আছে সেখানে যেতে বললেন  ভাবি। আমি খুব এক্সাইটেড। এক কথায় যাব বলে দিলাম।সিয়াম ভ্রু কুচকে তাকালেন এটা শুনে।

রুমে এসে সিয়াম বললেন তৈরি হতে। একটা গাউন পরেছি মাথায় হিজাব। সিয়াম হা হয়ে তাকিয়ে আছেন।

সুতি আনারকলি আমার প্রিয় ড্রেস। বাহিরে ঠান্ডা হাওয়া বইছে।এই লোক বরাবরই আনরোমান্টিক একটা পাঞ্জাবি পড়লে কি এমন হতো!! বাদামি কালো শার্টে মানিয়েছে।
 
গান ভাজছে আমি গিয়ে ভাবির পাশে বসে আছি। আমার কখনো এমন কন্সার্টে যাওয়া হয় নি। গ্রামের মেয়ে বরাবরই রেখেছি নিজেকে আয়ত্বের ভেতর।

ঠান্ডা লাগছে একটু একটু। অনুস্টানের শেষে আমরা এক সাথেই ডিনার করেছি। বিয়ার খাওয়া ফলে অনেক বক বক করেছি।

খাটাশ,বজ্জাত, লোক বলে দিলাম বকে যকে সিয়াম হাসছে। আমার ভ্রু জোড়া প্রসারিত করে মানে জানতে চাইলাম।

এই ফাঁকে সিয়াম হাত ধরে বললেন আই এম সরি রিমু! বিরক্তি উছ্বলে পড়লো আমার মুখে। কিছুই বলি নি সোজা সটান হয়ে শুয়ে পড়লাম খাটে।

আমি কেন মানব এত সহজে সরি??বুক ভারি হলো চাপা অভিমানে।আমি কেন দুরে থাকব বিছানা ছেড়ে। ঘুমে তলিয়ে গেলাম কিছুই শুনতে চাই না আমি এখন ঘুমাবো তাই সিয়ামের এত ডাক উপেক্ষা করে নিলাম।

আসলেই কি আছে না রুপ লাবণ্য,খাট মেয়ে একজন। একজোড়া জুতো হাজার খুঁজে কিনতে হয়। এমন প্রসন্ন হৃদয় কি তার হবে আমার জন্য।

শপিং করছি আর ভাবছি। মেয়ে মানেই জুয়েলার্সে একটা বাড়তি আর্কষণ থাকবে৷ প্রিয় মানুষের পছন্দের জিনিস পড়তে অনেক আনন্দ। ভাবিকে দেখেই বুঝা যায়। আমার জন্য কেউ কি পছন্দ করবে?? এই ভাবতে ভাবতে সিয়াম একজোড়া নুপুর হাতে গুজে দিয়ে বললেন এটা তোমার জন্য।

খুশি গুলো উঁকি দিচ্ছে মনের কোণে। অতপঅর  হাতের ব্যগ দিয়ে বললেন এটা নুহার একটু রাখ।আমার হাসি মিলিয়ে গেল। মনোযোগি হলাম নিজের শপিংয়ে। বাসার সবার জন্য কেনাকাটা করেছি। সিয়ামের জন্যও এনেছি হয়তো পড়বে নয়তো না।

তাতে সময় সব কিছু কি থেমে থাকবে?? আমিও মানিয়ে নিতে চাচ্ছি।সিয়াম কিছু দিন থেকে একটু হলেও বদলেছেন।

হাসি খুশি ভাবেই কথা বলছেন।চিন্তায় মগ্ন সিয়ামে হুস ফিরে হাতে গরম কফির স্পর্শে। বললাম কি ভাবছেন??

সিয়াম এক ধাপ এগিয়ে রিমুর দিকে বলল তুমি তো আমার উত্তর এখনো দেও নি কেন?? ফিসেল হেসে বললাম কোন জগতে শুনেছেন স্ত্রী শুধু বন্ধু হয়ে থাকতে।

এত উদার আমি নই তবে চেষ্টা করব। সিয়াম চুপ করে বলে উঠলেন এটা আধুনিক যুগ সবি সম্ভব।

আমি বললাম আমি তো আর আধুনিকা নই জনাব। তবে হবে আমার পোশাকে কঠিনতা নেই আছে শুধু মাধুর্য। খুঁজার চেষ্টা করবেন।

মাঝে মাঝে তোমার ওই কঠিন কথা বুঝে উঠতে পারি না রিমু।স্মিত হেসে বললাম তাহলে কি বুঝেন শুনি?শুধু আধুনিকা না এই ঘেউ হিজাবওয়ালিকে।

দিনে দিনে আমাদের বন্ধুত্ব গভীর হতে লাগলো। কিন্তু এটা আমার কাছে অন্য রকম কষ্ট আনন্দ দুই মিলে মিশে।

চলবে--
বিষয়শ্রেণী: গল্প
ব্লগটি ৬১ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ১৯/০৯/২০২১

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

 
Quantcast