www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

ধর্ষণ

( সামাজিক কথা )
ধর্ষণ শব্দটি সাধারণ শব্দ নয় । ধর্ষণ শব্দটি শুনার সাথে সাথে দেহ শিহরে উঠে । এই শব্দটি একটি জীবনের মরণ । একটি দেহকে মচকিয়ে, দুমড়িয়ে, শ্বাসরুদ্ধ করে ছেড়ে দেওয়ার মত । নারীদের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বলছে বাংলাদেশে ২০১৬ সালে এক হাজারেরও বেশি নারী ও কন্যা শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। তারা বলছে, আগের বছরের তুলনায় এই সংখ্যা কিছুটা কম হলেও ধর্ষণ, নির্যাতনের ধরণ ছিলো নির্মম ও নিষ্ঠুর। এ ঘটনাগুলোকে 'ধর্ষণ, গণধর্ষণ ও ধর্ষণের পর হত্যা' এই তিনভাগে ভাগ করা হয়েছে। এখন আমার কথা হচ্ছে ধর্ষণের পিছনে কি দায়ি মন মানসিকথা,বিবেক, নাকি পোশাক ? আমার দৃষ্টিকোন থেকে আমি মনে করি মন মানসিকতা যেমন দায়ি ঠিক পোশাকও তেমন দায়ি । এবার একটি উদাহরণ দেই ; যখন আমাদের মন মানসিকতার নুনু উত্তেজিত হয়ে যায় তখন ২২ মাসের শিশু আর ৮০ বছরে বৃদ্ধ সমান হয় । আবার অনেকে আছে নিজের মন মানসিকতাকে নিরাপদে রাখার চেষ্টা করে নুনু উত্তেজিত হলেও হস্তমৈথনে নিজেকে সামলে রাখে । কিন্তু অনেক সময় দেখা যায় অর্ধউলঙ্গ মেয়েদের দেখে নিজেকে সামলাতে এক বার দুই, তিন, দশ বার চেষ্টা করে পরে আর পারেনা তাই ধর্ষণের মত জগন্যতম কাজ করে পেলে । আবার দেখা যায় অনেকে আছে রাগ, গোপ বসত ধর্ষণ করে । প্রেমে, বিয়েতে রাজি না হয়াতে ধর্ষণ করে ইত্যাদি ইত্যাদি । এখন কথা হচ্ছে যত বেশি অর্ধউলঙ্গ পোশাক বাড়ছে তত বেশি মন মানসিকতা বিবেক হারিয়ে যাচ্ছে ? এখানে মন মানসিকতা, বিবেক , অর্ধউলঙ্গ পোশাক থেকে শুরু করে আমাদের আইন, সমাজ- রাষ্ট্রিয় ব্যবস্থারও কিছু সংকট রয়েছে যেমনঃ আইন- বিচার ব্যাবস্থা । ধর্ষণের আইন হয়া উচিত যাবতজীবন অথবা মৃত্যুদণ্ড । আমরা যদি লক্ষ করি সৌদীর তুলোনায় আমেরিকায় ধর্ষণের হার বেশি কিন্তু কেন ?ধর্মঅবলম্বী মেয়ে- পুরুষ , অর্ধউলঙ্গ মেয়ে- পুরুষ, মন মানোসিকতা, বিবেক হীন মানুষের কাছে আমি জানতে চাই, সারা জাতীর কাছে আমার এই প্রশ্নের উত্তর চাই ।
বিষয়শ্রেণী: সংবাদ
ব্লগটি ৩৪৫ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ১০/০৪/২০১৮

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

 
Quantcast