www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

মাদারিপুর সমিতি (১৯১০খ্রি‌ঃ)

পূর্ণচন্দ্র দাস ১৯১০ খ্রিস্টাব্দে “আনুশীলন সমিতি” (পুলিন বিহারীদাস) ও “যুগান্তর সমিতি” (যতিন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়) এর মত বঙ্গভঙ্গ বিরোধী সশস্ত্র আন্দোলন পরিচালনার জন্য “মাদারিপুর সমিতি” প্রতিষ্ঠা করেন। এ সমিতি ব্রিটিশ শাসনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন গেরিলা যুদ্ধের মাধ্যমে বিপ্লবিক আন্দোলন পরিচালনা করে। মাউজার পিস্তল, বোমা ও সাদা মুখোশ ব্যাবহার করা হত। ১৯১২খ্রিঃ পূর্ণচন্দ্র দাস এর নেতৃত্বে মাদারিপুর সমিতি পাঁচটি বড় বড় গেরিলা যুদ্ধ সংগঠিত করে।
পূর্ণচন্দ্র দাস ছিলেন সমিতির প্রধান ব্যাক্তি ও আদর্শ। ১৮৮৯খ্রিঃ রাজৈর থানার সমাজ ইশবপুর গ্রামে তাঁর জন্ম। তিনি কলকাতার বঙ্গবাসী কলেজের লেখাপড়া পরিত্যাগ করে ১৯১০খ্রিঃ ব্রিটিশ বিরোধী বিপ্লবী দল মাদারিপুর সমিতি গঠন করেন। সমিতিতে আরও সাতাশজন বিপ্লবী তরুন ছিলেন। এদেরমধ্যে অন্যতম ছিলেন স্বামী প্রণবানন্দজী মহারাজ, চিত্তপ্রিয় রায় চৌধুরী, নীরেন্দ্রনাথ দাশগুপ্ত, মনোরঞ্জন সেনগুপ্ত প্রমুখ। চিত্তপ্রিয় রায় চৌধুরী ১৮৯৪খ্রিঃ রাজৈর থানার খালিয়া গ্রামে এবং নীরেন্দ্রনাথ দাশগুপ্ত ১৮৯২খ্রিঃ ও মনোরঞ্জন সেনগুপ্ত ১৮৯৮খ্রিঃ খৈয়ারভাঙ্গা গ্রামে জন্ম গ্রহন করেন। মাদারিপুর হাই স্কুল-এর তৎকালীন প্রধান শিক্ষক সৈারেন চৌধুরী (ডাবল এম.এ.) বিপ্লবী ছাত্রদের প্রশ্রয় দেয়ায় চাকরিচ্যুত হন এবং পরবর্তীতে বরিশাল বি.এম. কলেজে অধ্যাপনা করেন। ১৯১৩খ্রিঃ ফরিদপুর ষড়যন্ত্র মামলায় পূর্ণচন্দ্রসহ মাদারিপুর সমিতির প্রায় সদস্যরা গ্রেপ্তার হন এবং পাঁচ মাস জেল খাটেন।
পরবর্তীতে পূর্ণচন্দ্র দাস কলকাতায় গিয়ে জোরেসোরে কাজ শুরু করলে সিংহপুরুষ যতিন্দ্রনাথের সাথে পরিচয় ও গভীর ঘনিষ্ঠতা গড়ে ওঠে। নীরেন্দ্রনাথ দাশগুপ্ত ১৯১৫খ্রিঃ গোয়েন্দা অফিসার নীরদ হালদারকে গুলি করে হত্যা করেন। চিত্তপ্রিয় রায় চৌধুরী মিনিটে ৩৬০টি গুলি ছোড়ার কৃতিত্বে বাঘাযতিনের নিকট পুরস্কৃত হন। তিনি ১৮ ফেব্রুয়ারি ১৯১৫খ্রিঃ কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন দিবসে পুলিশ ইন্সপেক্টর সুরেশ মুখার্জীকে হত্যা করেন। ১৯১৫খ্রিঃ ৯ই সেপ্টেম্বর উরিস্যার বালেশ্বর জেলায় বুড়িবালাম নদীর তীরে ইংরেজ বাহিনীর বিরুদ্ধে সম্মুখযুদ্ধে তিনি শহীদ হন। বালেশ্বরের ট্রেঞ্চযুদ্ধে মাদারিপুর সমিতির সদস্যরা বীর বিক্রমে যুদ্ধ করে। বিপরীতপক্ষে চার্লস টেগার্ট, কমান্ডার রাদারফোর্ড, জেলা মেজিস্ট্রেট কিলডি সহ অসংখ্য সশস্ত্র পুলিশ ও সামরিক বাহিনী। নীরেন্দ্রনাথ দাশগুপ্ত(২৩) ও মনোরঞ্জন সেনগুপ্ত(১৭) ইংরেজদের হাতে গ্রেপ্তার হন এবং ৩রা ডিসেম্বর বালেশ্বর জেলে তাঁদের ফাঁসি হয়।
যুদ্ধে যতিন্দ্রনাথ গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। তার মৃত্যুতে পূর্ণচন্দ্র দাশ হতাশাগ্রস্থ হয়ে কলকাতায় সমিতির সকল সদস্যদের অন্যতম বিপ্লবী নেতা অতুকৃষ্য ঘোষের নেতৃত্বে অর্পন করেন। পূর্ণচন্দ্র ১৯১৪খ্রিঃ ভারত-রক্ষা আইনে ধৃত হয়ে ১৯২০খ্রিঃ পর্যন্ত জেলে আটক থাকেন। পরে তিনি নেতাজী সুভাষচন্দ্রের নবগঠিত ফরওয়ার্ড ব্লকের সঙ্গে যুক্ত হন এবং ১৯৪০খ্রিঃ পুনরায় গ্রেপ্তার হয়ে ১৯৪৬খ্রিঃ মুক্তি পান। তিনি জেলে মোট ২৭ বছর আটক ছিলেন। ২ বছর পলাতক অবস্থায় ছিলেন। তিনি ৩৩ দিন অনশন ধর্মঘট করেছিলেন। দেশ বিভাগের পর দলীয় রাজনীতি ত্যাগ করেন এবং কলকাতায় উদ্বাস্তু পুনর্বাসন বোর্ডের সদস্য হয়ে বাস্তুহারাদের কল্যাণে তৎপর হন। ১৯৫৬খ্রিঃ বালিগঞ্জে সুবোধ নামে এক প্রাক্তন বিপ্লবীর ছুরিকাঘাতে তাঁর মৃত্যু ঘটে। কাজী নজরুল ইসলাম “পূর্ণ-অভিনন্দন” কবিতাটি তাকে উৎসর্গ করেন এবং কবিতায় তাকে মাদারিপুরের মর্দ্দবীর বলে সম্মোধন করেন; এমনকি এই কবিতার ‘জয় বাংলার পূর্ণচন্দ্র’ পংক্তি থেকে ‘জয় বাংলা’ শ্লোগান হিসেবে গ্রহণ করা হয় । এছাড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তার অসমাপত্ত আত্ম জীবনীতে তাকে ইংরেজদের আতঙ্ক হিসেবে উল্লেখ করেছেন। আরও উল্লেখ করেছেন ১৯৩৬খ্রিঃ মাদারিপুর আবস্থানকালে পূর্ণ দাসের সভায় নিয়োমিত যাতায়াত করতেন এবং সেখান থেকেই ইংরেজদের বিরুদ্ধে বিরূপ ধারণা সৃষ্টি হয়; ইংরেজদের এদেশে থাকার অধিকার নেই, স্বাধীনতা আনতে হবে।‌ সমিতির আরেক সদস্য বিনোদ দাস পরবর্তীতে প্রণব সাধনার প্রতি আকৃষ্ট হয়ে গোরক্ষপুরের মহাযোগী গম্ভীরনাথজীর নিকট দীক্ষিত হন এবং আচার্য স্বামী প্রণবানন্দ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। ১৯১৭খ্রিঃ বাজিতপুরে একটি সেবাশ্রম গঠন করেন, ১৯২১খ্রিঃ সুন্দরবনে “ভারত সেবাশ্রম সংঘ” এবং ১৯২৪খ্রিঃ গয়া সেবাশ্রম প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৪১খ্রিঃ মাত্র ৪৫বছর বয়সে তাঁর মৃত্যু হয়।


তথ্যসূত্র‌ঃ
* মাদারীপুর জেলা পরিচিতি - আব্দুল জব্বার মিয়া
* ভাঙার গান - কাজী নজরুল ইসলাম
* জেলে ত্রিশ বছর - ত্রৈলোক্যনাথ চক্রবর্তী
* অসমাপ্ত আত্মজীবনী - শেখ মুজিবুর রহমান
* উইকিপিডিয়া ও অন্নান্য ইন্টারনেট উৎস
বিষয়শ্রেণী: প্রবন্ধ
ব্লগটি ১৫০ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ০৮/০৯/২০১৮

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

  • নির্ঘুম মিশ্র ১০/০৯/২০১৮
    তথ্যসমৃদ্ধ লেখা
  • ভাল
 
Quantcast