www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

নাটক-প্রমের প্রস্থান (দৃশ্য-৬)

চরিত্রঃ
ছোঁয়া, তুলি,সোলেমান(ভার্সিটির
কর্মচারী),মোমেলা(ছোঁয়ার
মা),শানুমিয়া(ছোঁয়ার চাচা)
স্থানঃ গ্রামের বাড়ি ও ঢাকা ভার্সিটি
সময়:
দুই বছর পর
কাহিনীঃ
{সোনা মিয়া ভার্সিটিতে ভর্তি হলে তার দূসর্ম্পকীয় মামার রেফারেন্সে রামপুরার বনশ্রীতে স্থানীয় এক বাড়িওয়ীর বাসায় লজিং হিসেবে থাকবে। সেখানে বাড়ীওয়ালীর একমাত্র নাইনে পড়ুয়া সুন্দরী কন্যা জেমি কে পড়াবে।জেমির মায়ের আগ্রহে জেমি কলে কৌশলে সোনা মিয়াকে নিজের প্রেমের ফাঁদে ফেলবে। অবশেষে সোনা মিয়া জেমিকে বিয়ে করতে বাধ্য হবে।অপরদিকে সোনা মিয়া দুই বছর ধরে ছোঁয়ার খোঁজ খবর না রাথার কারণে ছোঁয়া পাগলিণী হয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে অজানার উদ্দেশে ঢাকা এসে বক্সীবাজরে এক আত্মীয়ের বাসায় ওঠবে।প্রতিদিন সকাল বিকেল ছোঁয়া তার আত্মীয়া এগার বছরের তুলিকে সাথে নিয়ে ভার্সিটির সামনে ঘোরাফেরা করবে}

তুলিঃ আপু প্রতিদিন তুমি আমাকে নিয়ে এখানে আস কেন
বল?
ছোঁয়াঃ জানিনা
তুলিঃ আমি জানি
ছোঁয়াঃ তুমি জান? বল কি জান
তুলিঃ তুমি প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর সময় কাদোঁ কেন?
ছোঁয়াঃ তুমি দেখছো।
তুলিঃ হুম!
ছোঁয়াঃ আচ্ছা আমি এক জন মানুষকে খুছঁছি তাকে পাব
কোথায় বলতে পার
তুলি: রোডে রোডে খোঁজলে কি কেউ কাউকে কখনও
পায়
ছোঁয়াঃ তাহলে কিভাবে?
তুলিঃ তার বাসায় যাও
ছোয়াঃ আমি যে তার বাসা চিনিনা
তুলিঃ বাসা না চিনলে তার অফিসে যাইতে পারনা
ছোঁয়াঃ তাই হবে।চল তার অফিসে মানে ভার্সিটিতে যাই

{ছোঁয়া তুলিকে নিয়ে খুজঁতে থুজঁতে ভাসির্টটির গেইটে পৌঁছে তৃতীয় শ্রেনীর এক কর্মচারীর সাথে কথা বলবে}
সোলেমানঃ তোমরা কার কছে অসছো?
ছোঁয়াঃ আমি একজনকে খুজঁছি
সোলেমানঃ এখানে তুমি কাকে খুঝঁছো মা
ছোঁয়াঃ কাকা-………………………
(ছোঁয়া কেঁদে কেঁদে কথা বলবে শোনা যাবেনা।সোলেমানের কথা শুনে দু’জন চলে আসবে)
{এদিকে মেয়ের শোকে গ্রামের বাড়িতে ছোঁয়ার মা পাগলের মত হয়ে যাবে।ঘর ভরা লোকজন থাকবে।ছোঁয়ার মাকে সবাই সান্ত্রনা দিবে}
মোমেলাঃ তোমরা আমার মাইয়ারে আইনা দেও, না
হইলে আমি মুন্সির
ব্যাটারে (সোনা মিযা) জেলের ভাত খাওয়ায়া ছাড়মু
শানুমিয়াঃ আইজ একটা হ্যাস্ত ন্যাস্ত করতেই হবে।
{উপস্থিত সবাই সমস্বরে বলবে ঠিকই কইছো।আর ধৈর্য ধরা যাবেনা}

{এদিকে সোনামিয়া ঢাকা এসে সোহান নাম ধারন করবে।বনশ্রী জেমিদের বাসার হালচাল।খাবার টেবিলে বসে কথোপকথন।}
জেমিঃ শোন সোহান বাবা ইতালী থেকে এলে এবার কিন্তু
আমরা সবাই মিলে তোমাদের গ্রামের বাড়িতে যাব
সোহানঃ সে ঠিক আছে।কিন্তু…………….
জেমিঃ আবার কিন্তু কেন সোহান ।আমি বাবার সাথে
আগেই কথা পাকা করে
রাখছি।
ইরানীঃ বেশ ভাল হবে।অনেক দিনপর সবাই মিলে গ্রামে
মজা করা যাবে।
জেমিঃ এবার কিন্তু তুমি না করনা।আমরা সবাই
মিলে গ্রামে যাবো কি যে মজা হবে তাইনা আম্মু
ইরানীঃ ভালই হবে।সোহান তুমি বরং তোমার মা কে বলে
দাও আমরা সবাই আসছি
সোহানঃ ঠিক আছে মা।আমি বলছি আমাদের ঘরবাড়িটা
এখনও কমপ্লিট হয়নি,
জেমিঃ রাখতো তোমার ঘর-বাড়ি।আমরা সবাই মিলে
এবার কুয়াকাটা সৈকতে গোসল করব।তাইনা মোম!
ইরানীঃ তাই হবে মা তুই একদম চিন্তা করিসনা।
সোহানঃ মা সত্যি সত্যি যাচ্ছেন তাহলে?
জেমিঃ আবার জিগায়।আব্বু আসলেই আমরা শা….শা…
কুয়াকাটা
(চলবে)
বিষয়শ্রেণী: অন্যান্য
ব্লগটি ৬৬ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ১৯/০১/২০১৯

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

  • এত ছোট নাটিকা হয় না।
    • পনের পর্বের মধ্যে মাত্র ছয় পর্ব পড়েই যদি আপনি এরুপ মন্তব্য করেন আমার কি করার থাকে বলুন! আশা করি বাকী পর্বগুলো পড়ে মন্তব্য করবেন। ধন্যবাদ।
  • Nice.
 
Quantcast