www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

স্বপ্ন নিয়ে

স্বপ্ন নিয়েঃ
-----
স্বপ্ন দেখে মানুষ,স্বপ্ন নিয়ে বেঁচে থাকে মানুষ।এক অর্থে স্বপ্নকে আশা বলা যায়।মানুষ তার স্বপ্ন পূরণে ব্রতী হয়।
স্বপ্ন নিয়ে অনেক দার্শনিক উক্তি আছে।
ব্রায়ান ডাইসন বলেছেন"স্বপ্নপূরণই জীবনের একমাত্র লক্ষ্য নয়।তাই বলে স্বপ্নকে ত্যাগ করে নয়,তাকে সঙ্গে নিয়ে চলো।স্বপ্ন ছাড়া জীবন অর্থহীন"।
থিওডোর জেলডিন বলেছেন “জীবনের যন্ত্রণাদায়ক সময়েও যা জীবনকে ভালোবাসতে বাধ্য করে তাই স্বপ্ন"।
আবার উইলিয়াম আর্থার ওয়ার্ড স্বপ্ন পূরণের সারথী হিসেবে নিজের বুদ্ধিমত্তা ও কর্মকে উল্লেখ করতে গিয়ে বলেন “নৈরাশ্যবাদীরা বায়ুপ্রবাহের ঘাড়ে দোষ চাপায়, আশাবাদীরা বায়ুপ্রবাহের দিক পরিবর্তনের জন্য অপেক্ষা করে আর বাস্তববাদীরা বায়ুপ্রবাহ বুঝে পাল টানিয়ে নেয়”।
হুমায়ূন আহমেদ বলেছেন"একজন মানুষকে সত্যিকার ভাবে জানার উপায় হচ্ছে তার স্বপ্নটা জানা"।
আবার মানুষের স্বপ্নের নির্ভেজাল ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে ভারতের প্রয়াত রাষ্ট্রপতি এপিজে আব্দুল কালাম বলেছেন “স্বপ্ন সেটা নয় যেটা তুমি ঘুমিয়ে দেখ, স্বপ্ন হল সেটাই যেটা পূরণের প্রত্যাশা তোমাকে ঘুমাতে দেয় না।”
আর নির্মলেন্দু গুণ তাঁর কবিতার ভাষায় বলেছেন" রাতভর স্বপ্ন দেখে ভোর সকালে ক্লান্ত,
যাকে নিয়ে স্বপ্ন দেখা,সে যদি তা জানতো"।
--- মানুষের স্বপ্ন তার পরিবারকে কেন্দ্র করে আবর্ত্তিত হয়,কখনও কর্মকে কেন্দ্র করে,কখনও দেশ ও সমাজকে কেন্দ্র করে আবর্ত্তিত হয়।কারও স্বপ্ন দেশ কাল ছাড়িয়ে সমগ্র মানব জাতিকে কেন্দ্র করে আবর্ত্তিত হয়।
একজন শিক্ষক হিসেবে আমারও অনেক স্বপ্ন আছে।যেগুলো হয়তো পূরণ হবার নয় বা পূরণ করা কষ্টসাধ্য।
আমার কিছু স্বপ্ন আছে যেগুলো পূরণ হবার মতঃ
---- প্রতিদিন আমার শিক্ষার্থীরা ভরপেট খেয়ে,চমৎকার ভাবে পরিপাটি হয়ে স্কুলে আসবে।সবাই উপস্থিত থাকবে প্রতিদিন।
---- আমার স্কুলটিকে আমি চমৎকার ভাবে আকর্ষণীয় ডেকোরেশন করব,স্কুলের রঙ সবসময় চকমকে থাকবে।
------ একটি বাগান থাকবে,অনেক খেলনা থাকবে,খেলার মাঠ থাকবে,খেলার জন্য পর্যাপ্ত সময় থাকবে।
------- আমার একটি কক্ষ থাকবে যেখানে ল্যাপটপ থাকবে,আকর্ষণীয় স্থায়ী শিক্ষা উপকরণ দ্বারা সজ্জ্বিত থাকবে।শিক্ষার্থীরা অনুশীলন করবে নিজেরা।
------ স্কুলের একটি কক্ষ থাকবে লাইব্রেরী হিসেবে,যেখানে প্রচুর বই থাকবে।ইতিহাস ঐতিহ্য এবং জীবনকে জানার মত, আনন্দ পাবার মত শিশুতোষ প্রচুর বই থাকবে।
------ সপ্তাহে একটি দিন শিক্ষার্থীরা ক্লাসের বই পড়বেনা,সহপাঠক্রমিক কার্যক্রম,কোন দর্শনীয় স্থান দেখতে অথবা শুধু খেলে আর গল্পের বই পড়ে,ছবি এঁকে কাটাবে।একটি কর্ণার থাকবে শুধুই তাদের আঁকা আর লেখা প্রদর্শনের জন্য।
------অভিভাবকগণ স্বেচ্ছায় একটু খেয়াল করবেন তাদের সন্তানের উন্নয়নের ব্যপারে।তাদের সন্তানেরা স্কুলে কি শিখছে খেয়াল করবেন,প্রতিদিন স্কুলে পাঠাতে সচেষ্ট হবেন।
আমার স্বপ্ন গুলো হয়তো তেমন বড় নয়,কিন্তু পূরণ হবে কি না জানিনা।
আমার অস্তিত্ব যে আধারে পরিপূর্ণ তার সবটাই আমার শিক্ষার্থীরা গ্রহন করে আরও আরও অনেকভাবে পরিপূর্ণ হয়ে আমাকে হারিয়ে দিক- পরিপূর্ণ মানব হিসাবে সমাজে প্রতিষ্ঠিত হোক এটাই সবচেয়ে বড় স্বপ্ন,বড় প্রত্যাশা।
--২/১০/২০১৮
বিষয়শ্রেণী: প্রবন্ধ
ব্লগটি ৭৯ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ০৭/০১/২০১৯

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

 
Quantcast