www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

অথচ সে পথ

অথচ সে পথ......
অরন্য রানা

আবছা অন্ধকার ছিল সে রাত
বিকেল থেকেই গুড়ি গুড়ি জ্বলফোটা পড়ছিলো
শহরের পথঘাটে
আমার ষোল কি- সতেরো হবে বয়সটা
শরীরের গড়নটা ছিল চোখ ধাঁধানো
যে কেউ আমায় দেখে শরিরে উঞ্চতা
অনুভব করতো
পাপ পাপ কি পাপ ছিলো আমার ?
আমি উত্তর চাই আ-আমি উওর চাই
সে পথটা তো আমার অচেনা নয় !
পথ পথের মানুষ এমনকি পথের
কুকুরটাও
আমি কখনো ভয় পেতাম না
ভীতু হতাম না কোন শরীরহীন মানব দেখে
সে পথ, সে পথের প্রতিটি পথিক যে আমার চেনা
তবে কি ছিলো আমার পাপ
আমার অল্পতে বেড়ে ওঠা শরীর,
উচ্ছল হাসি, আত্মবিশ্বাস, আমার অহংকার,
সব সব কিছু ভেঙে চুরমার করে দিলো ওরা
কেউ কেউ বলতো আমি নাকি মায়াবীনি!
হা হা হা মায়া !
আমি চিৎকার করেছিলাম কয়েকবার থেকে
হয়তো কয়েকশত বার
আমায় ছেড়ে দাও আমায় যেতে দাও আমায় যেতে দাও
আ-আ মা- যে -তে দাও ।
আমায় কামড়ে কামড়ে ফেলে রেখে গেল
চুরি পরতে ভালবাসতাম, লাল কাঁচের চুরি
আমার নিস্পেষীত শরীরের রক্ত আর লাল চুরি।
সে পথে ,অ অথচ সে পথ আমার চেনা
তবে কি অসময়ে আমার শরীরটা বেড়ে ওঠাই
আমার পাপ?
কেউ একটি বার ফিরে তাকালো না
আমার ভালবাসা আমার পরিবার
আমার আদরের একমাত্র লাল পুতুলটা
সেও মুখ ফিরিয়ে নিল। আমি পরে রইলাম
সেই আবছা অন্ধকারের কর্দমাক্ত পথে
অথচ সে পথ......
বিষয়শ্রেণী: কবিতা
ব্লগটি ২৭ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ১০/১০/২০১৮

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

  • অনবদ্য। মুগ্ধ হলাম।
  • আব্দুল হক ১০/১০/২০১৮
    বেশ ভালো হয়েছে!
 
Quantcast