www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

গিলিয়া খাওয়া বিবেকের পূনরুদ্ধার চেষ্টা

অফিস থেকে বাহির হইয়াছি ব্যাংকে যাওয়ার উদ্দেশ্য । অল্পক্ষনের রাস্তা তাই হাঁটিয়া যাওয়াই ভাল মনস্ত করিয়া হাঁটা শুরু করিলাম । মিনিটের পথ হাঁটার পরই একটি রিক্সাযান চোক্ষুগোছর হইল । বাঙ্গালী নাকি নবাবের জাত । তাই এতোবড় একটা জাতকে বিসর্জন দিতে মন চাইল না বলে রিক্সাতে চড়িলাম । ভাড়া সংক্রান্ত কোন আলাপ ব্যাতিরেকেই রিক্সায় উঠিলাম । মনে ভাবিলাম ভাড়া তো ৫-৭ টাকা । ১০ টাকা দিয়েই নিজের বড়ত্বটাকে প্রকাশ করিব রিক্সা ওয়ালার কাছে, দেখ দক্ষিণা পারি দিতে আমিও । গন্তব্যে পৌঁছে রিক্সাওয়ালে ৫০ টাকা একটা নোট হাতে দিলাম । সে আমাকে ৩০ টাকা ফেরত দিল । ভ্রু কোঁচকে জিজ্ঞাসা করিলাম ৩০ টাকা দিলে যে, আরও দশ দাও , ভাড়া তো ৫-৭ টাকা, অল্পক্ষনের রাস্তা । ৫ মিনিট লাগেনি আসিতে তুমি ২০ টাকা রাখো কি করিয়া । রিক্সা ওয়ালা ক্ষ্যাপা কণ্ঠে বলিল “ মিয়া বিবেক কি গিইল্লা খাইছেন নাকি, ৫ টাকা ভাড়া কন”। বলিলাম তো ১০ টাকা রাখো ২০ টাকা রাখতে চাও কোন হিসেবে ? রিক্সা ওয়ালা আরও ক্ষ্যাপা হওয়ার প্রস্তুতি নিল । ভাবিলাম মান যাওয়ার আগেই মান ধরিয়া রাখিতে হইবে তাই ১৫ টাকা দিয়া তড়িৎ গতিতে ব্যাংকে ঢুকিয়া পড়িলাম । রিক্সা ওয়ালা ১৫ টাকা পেয়ে রিক্সা টান দিল । ব্যাংক এর কাজ শেষ করিয়া আবার অফিসে যাইব । রিক্সা নেবার চিন্তা না করিয়া হাঁটিতে আরম্ব করিলাম । স্বাভাবিক গতিতে হাঁটিয়া ৭ মিনিটের মধ্যে অফিসে পৌছিলাম । তখন মনে ভাবিলাম এই ৭ মিনিট রাস্তা হাঁটিব আর তাঁর জন্য কেন রিক্সা নিতে গেলাম । নিজের বিবেকটাকেই বা কেন গিলিয়া খাইতে গেলাম ! তাই মনস্ত করিলাম বিবেক পূনরুদ্ধার করিতে চাইলে এই ৫-৭ মিনিট পথ হাঁটার রাস্তাতে আর কোন দিন রিক্সাযানে চড়িয়ে নিজের নবাবিত্ব প্রকাশ করিতে যাইব না আর নিজের বিবেকও গিলিয়া খাইতে যাইব না । এরুপ মনস্ত করিয়া বিবেকপূনরুদ্ধারের চেষ্টায় লাগিয়া গেলাম ।
বিষয়শ্রেণী: অভিজ্ঞতা
ব্লগটি ৫৩৩ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ১৬/০৬/২০১৪

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

  • সামাদ ২২/০৬/২০১৪
    খুব ভাল লাগল।
  • কবি মোঃ ইকবাল ১৬/০৬/২০১৪
    অনন্য ভাবনার একটি চমৎকার লিখনী।
    ভালো লাগলো
    • ধন্যবাদ ভাই
 
Quantcast