www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

বলো কবিতা মহা মূল্যবান অনুভূতির-স্বাধীনতার কথা

পাখিরা উড়ছে আর ছড়িয়ে পড়ছে দিগ্বিদিক
শিকারির বন্দুকের শব্দে !
পার্কের বিশাল আঙ্গিনায় হঠাৎ ধুম লেগেছে-
সারি সারি পুরনো বৃক্ষগুলো কি শুধুই মানুষের ছায়ার আধার ?
উড়ন্ত বিবেকরা বোঝে- এরা আসলে পবিত্র আত্মার পাখিদের রিফিউজি ক্যাম্প !
অথচ এটা এই স্বাধীন দেশের রাজধানীর মানুষগুলো বোঝে না!   
বোঝে কেমনে ? কারণ তারা তো আসল স্বাধীনতা হারিয়েছে ইতিহাসের ভেতর।
যাদের জন্মই হয়েছে- "পার্থিব পৌরসভার পাঁচ টনই আবর্জনা বহনের তাগিদে !"
মহাবিশ্ব বাড়ছে সহজাত প্রক্রিয়ায়, সভ্যতার চোখ মেলছে আলোর গতিতে-
অথচ আমরা স্রেফ মূল্যহীন একগাদা জঞ্জাল ছাড়া আর কিছু নয় এই সম্ভাবনার গ্রহে।  
তিলে তিলে শূন্য হতে থাকা সবুজ বনরাজি আর নীলিমার বাসিন্দা পাখিদের আসলে সবিই আছে,  
কারণ তাদের শৈশব থেকেই ইতিহাস ধরিয়ে দেয়া হয়না
প্রাণের ভেতর পবিত্র ফুলের ভুল গজিয়ে ওঠে না লকলকিয়ে,
তারপর কৌশলে সতীত্বহানী ঘটেনা সপ্নের ভেতর 'অনুভূতির স্বাধীনতার' !!
অথচ আমরা অনুভূতির স্বাধীনতা হারিয়েছি স্রেফ ঔপনিবেশিক উপদেশ মালার বিনিময়ে!

পাখিরা আকাশে উড়ে 'অনুভূতির স্বাধীনতা' নিয়ে
আমি তাকিয়ে দেখছি সবার হয়ে।
জানো তো, অনুভূতির স্বাধীনতার একটা সঞ্চয়পত্র খুলেছিলাম গত জন্মে!
হু হু করে সেটা সুদে আসলে দিগুণ হয়েছে, শত নিষিদ্ধতার ভেতরও।  
কিন্তু এ যেন শুধু অর্থহীন সঞ্চয়
যার একমাত্র প্রায়োগিক মূল্যায়ন-
আমার এই অবধারিত কবিতা।
বলো কবিতা, মানুষের মহা মূল্যবান 'অনুভূতির স্বাধীনতার কথা!'


১১ই মে, ২০১৫
বিষয়শ্রেণী: কবিতা
ব্লগটি ৫৯৪ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ১১/০৫/২০১৫

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

 
Quantcast