www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

খেয়াল

নিশির নিখাত নিদ্রা শেষে বিহানবেলায় জেগেই দেখলেন, আপনি একটা প্রকাণ্ড পোকায় রূপান্তরিত হয়েছেন! কেমন লাগবে, বলুনতো? আসলে বলছিলাম গ্রেগর সামসার কথা। ফ্রাঞ্জ কাফকার অনু-উপন্যাস "মেটামরফোসিস"-এর কেন্দ্রীয় চরিত্র গ্রেগর সামসার কথা। গ্রেগর সামসা জন্তুতে রূপান্তরিত হলেও তার মধ্যে মানবিক বৈশিষ্ট্যের বৈকল্য ঘটে নি। অর্থাৎ আর দশটা মানুষের ন্যায় তারও চিন্তা-দুঃশ্চিন্তার ক্ষমতা বিদ্যমান ছিল। তবে অচিন্তা-কুচিন্তার বহিঃপ্রকাশ আমরা লক্ষ্য করিনি।

বিপরীতভাবে, আমরা ঈশপের গল্প সবাই জানি, যেখানে পশুপক্ষীরা মানুষের ন্যায় আচরণ করে-মানবীয় গুণাবলী প্রদর্শন করে। অর্থাৎ দেহটা পশুপক্ষীর, আর মনটা মানবীয়। জর্জ অরওয়েল-এর "এনিমাল ফার্ম"ও অনুরূপ বিষয়বস্তু নিয়ে রচিত একটি আদর্শ আলেখ্য।

আমরা জনাথন সুইফট-এর "গালিভারের সফরনামা" সম্বন্ধে সবাই কমবেশি জানি, যেখানে গল্পের কেন্দ্রীয় চরিত্র লেমুএল গালিভার এক পর্যায়ে কিভাবে ইয়াহুর (ঘোড়া সদৃশ প্রাণী) ন্যায় আচরণ করতে থাকে। অর্থাৎ দেহটা মানবীয়, আর মনটা পশুসুলভ!

আমাদের পৃথিবীতে জনসংখ্যা বেড়েই চলেছে, কিন্তু মানুষ ক্রমাগত কমছে। তাই আরও একজন ফ্রাঞ্জ কাফকার অপেক্ষায় আছি, যিনি নতুন এক গ্রেগর সামসার জন্ম দেবেন। তবে এক্ষেত্রে, গ্রেগর সামসার দেহ থাকবে মানুষের ন্যায়, আর তার মনে বিরাজ করবে কুত্তা, বিল্লি, বাঘ, সিঙ্ঘি, হায়েনা, উল্লুক-ভল্লুক...আরও কত কি!
বিষয়শ্রেণী: অন্যান্য
ব্লগটি ২৭৫ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ১৯/১১/২০১৭

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

  • সোলাইমান ১৯/১১/২০১৭
    অনন্য সুন্দর হয়েছে কবিবর
 
Quantcast