www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

Devil Father – ( পর্ব -৪ )

তারিখ ঃ ২৮-৩-২০২১

ডাক্তার ওয়াসি, ডাক্তার ফাহাদ, ডাক্তার মিথিলা।
অ্যাভনের বাবা ও মা এবং কয়জন পরিবারের সদস্য সামনে বসে আছে । অ্যাভনের ব্যাপার নিয়ে ডাক্তার এবং দুইজন ইন্সপেক্ট সহ বোর্ড বসেছে । এক সপ্তাহ ,ডাক্তার ওয়াসি, ডাক্তার ফাহাদ , এবং ডাক্তার মিথিলা ট্রিটমেন্ট treatment এই patient কে রাখা হবে। patient এর কোন উন্নতি হলে আপনাদের ইনফর্ম করা হবে । Visiting hour আপনারা patient কে দেখে যেতে পারবেন কিন্তু যদি patient আপানাদের দেখে কোন রকমের react বাহ drepress attituted করে থাকলো patient কে দূর থেকে দেখতে হবে ।
এরপরে সাইক্রেটিস্ট শামসুদ্দিন স্যার এবং কাউন্সিলার সামিরা হোসেন এর তত্ত্বাবধানে এই patient থাকবে । সাইক্রেটিস্ট শামসুদ্দিন স্যার ও কাউন্সিলার সামিরা হোসেন, একসাথে অনেক ক্রিমিনাল মানসিক রোগীদের সারিয়ে তুলেছেন,এবং তাদের problem বা ঘটনা আসলে কি ছিল তারা Find out করেছে ।
শাহাদাত হোসেনঃ হ্যাঁ আমি ওনাদের দুইজনের TV program দেখেছি, এবং খবরের কাগজে article
পরেছি ।
নাদিম হোসেনঃআমিও পড়েছি এবং দেখেছি । ( শাহাদাত হোসেন ছোট ভাই )
ডাক্তার ওয়াসি বললেন, শাহাদাত হোসেনকে, আপনার ছেলেকে ওনারা ক্রিমিনাল বলছে কেন জানেন? কারণ আপনাকে তিনি প্রকাশকে ” খুন করার হুমকি দিয়েছে “ ।
ইন্সপেক্টর শাকিল : যা পরবর্তীতে কথার সাউন্ডটি mute করে Tv news দেখানো হয় ।
আমরা পুলিশ অফিসারা ফুল ভিডিওটা দেখেছি। এবং আপনার ছেলেকে থানা থেকে যখন অ্যাম্বুলেন্সে তোলা হচ্ছিল। আপনাদের ছেলে আপনাদের দিকে তাকিয়ে বিশ্রী ভাবে হাসি দিয়েছিল am I right? শাহাদাত চৌধুরী এবং রুনা চৌধুরী, একে অন্যের দিকে তাকালও করুন দৃষ্টিতে। তারা ভাষাহীন হয়ে পড়ে। ইন্সপেক্টর শাকিল। yes, you are right.
রুনা চৌধুরীঃ একটা কুসন্তানের মা আমি, আমরা বলার মত কিছুই নেই । মাথা নিচু করে রাখলও ।
ডক্টর মিথেলা ঃ শান্ত হন মা,কান্না, থামান ভরসা রাকুন ।
( অ্যাভন কেবিনে )
ডক্টর ওয়াসী ডক্টর । মিথিলা on duty, Doctor দের সাথে অ্যাভনের কেবিনে male nurse,ওয়ার্ড বয়
ডক্টর ওয়াসী ঃ আচ্ছা, আপনি যদি নিজে না গোসল করতে পারেন তাহলে ,ওয়ার্ড বয় আপনাকে গোসল করিয়ে দিবে ,ওয়ার্ড বয় বলল patient help করো ।
অ্যাভন ঃ না, না, ঠিক আছে ,আমি যেই পারব। আচ্ছা, আমার accessories গুলা কোথায় ? DSLR ক্যামেরা,notepad , headphone, mobile tripod । এবং আমার ব্যাকপ্যাক। ওখানে আমার কিছু ইম্পরট্যান্ট things ছিল আর আমার গাড়ির চাবি ? বলেন এগুলো কোথায়?
ডক্টর মিথিলা ঃ ও গুলো পুলিশ স্টেশন থেকে আপনার parents দের submit করে দিয়েছে।
অ্যাভন : কি এত বড় ব্যাপার you can know anything about my this privacy. Yes I have lost my things and with my secret privacy lost !! what will you I do please tell me?
ডক্টর ওয়াসী: দেখুন, এগুলো আমরা হ্যান্ডওভার করিনি, আপনার প্যারেন্টস এর কাছে, আছে আপনি উত্তেজিত হবে না । অ্যাভন তখন কাঁপতে শুরু করলো, যেন মনে হচ্ছে মিরকি রুগী ।
ডক্টর ওয়াসী: ওকে ধরে,
male nurse,ওয়ার্ড বয় মিলে ধরে
ডক্টর মিথিলা অ্যাভনের হাত শক্ত করে ধরে ঘুমের injection দিয়ে দেয় ।
( কিছুদিন পর – একদিন পর )
অ্যাভন ঃ আপনার কি ফিরিয়ে দিব?
Nurse : এখন গোসল করবেন ? গোসল করে খাবার খেয়ে, রেস্ট নেবেন।
অ্যাভন গোসল শেষ করে খাবার খেয়ে শেষ করে,জানালা দিয়ে বাহিরে আকাশ দেখছিল ।
(এভাবে এক সপ্তাহ চলে গেল )
যতদিন ধরে হসপিটালে এর মধ্যে অ্যাভনের চিকিৎসা চলে, তার বাবা-মা আত্মীয়-স্বজনরা দেখতে আসে দূর থেকে এসে দেখে যায়, অ্যাভন তার Important things গুলো ফিরে পায় ।
অ্যাভন কিছুই জানে না যে তাদের parents তাকে ঠিকই দেখে আছে ।
কেন অ্যাভন এক অন্য জগতের জগৎ এর ভারহীন দেহহীন মনহীন আত্মার মানুষ ।
( Video- Call / Australia - শান্তা অ্যাভন বোন )
শান্তাঃ মা তুমি কাঁদছো কেন? অস্ট্রেলিয়া থেকে শান্তার ভিডিও কল, মা please তুমি কাঁদবে না । তোমার জামাই টিকিট কাটতে গেছে । আমরা bag and baggage নিয়ে ready হয়ে গেছি।
এখানে খুব ঠাণ্ডা। তোমরা এত ভেঙে পড়ো না আমরা তো আছি আমরা সবাই মিলে অ্যাভন কে সুস্থ করে তুলবো।
আমাদের অফিসের বস খুব ভালো। ৫ মাসের পর জব এক্সটেন্ড করে দিয়েছে । আর তোমার নাতি যা হয়েছে ।
সারাক্ষণ বলে নানা-নানি কাছে যাবো, কবে যাবে কবে অ্যাভন Uncle কে দেখবো ? । শান্তা এই
কথাটাই চোখে পানি ছলে আসে,কিন্তু শান্তার মন অনেক শক্ত ।
রুনা চৌধুরী অ্যাভন মা ,চলে আয়,আমার আর সহ্য হচ্ছে না। কত কষ্ট পাচ্ছি , এই ছেলেটার জন্য? এত কষ্ট দিবে, অপমানিত ,লাঞ্ছনা ,কল্পনাও করতে পারিনি।
( ভিডিও কল )
শাহাদাত চৌধুরীঃ বলে উঠলো। মা, শান্তা কবে আসছিস তোরা?,এইতো বাবা আমরা পরশুদিন প্লেনে উঠবো। শাহাদাত চৌধুরী,নাদভী ও নানু ভাই কেমন আছে? শান্তা,ভালো আছে। ওই দেখো তোমার নাতি
ঘুমিয়ে গেছে ।
সাইক্রেটিস্ট ডক্টর শামসুদ্দিন স্যার treatment শুরু হয়েছে গেছে এখন শুরু শুরু হবে counselor সামিরা হোসেন counselling ।
দুইজনের তত্ত্বাবধায়নে অ্যাভন ট্রিটমেন্ট শুরু।
( প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে )
যখন ডক্টর ওয়াসী, ডক্টর মিথিলা, এবং ডক্টর ফাহাদ, এর আন্ডারে ছিল তখন তারা অ্যাভনের প্রতি এক প্রকার বিরক্ত এবং তার প্রতি বেশ অভিযোগ রয়েছে । ওয়ার্ড বয় এবং নার্সদের মাঝে বেশ কানাঘুষা
চলে অ্যাভন হয়তো মানুষ না তান্ত্রিক বা ভুত । কিংবা তার উপর জিন ভর করেছে। কিন্তু সাইন্স Theory Believe করে না ।
কাউন্সিলর সামিরা হোসেন অনেক স্পেশাল Case deal করেন , ক্রিমিনাল সাইকলজিক্যাল patient deal করেছেন ইতিমধ্যে । বিদেশ থেকে পড়াশোনা করে এসেছে হিউম্যান সাইকোলজি উপর।
তার নানা লন্ডন থেকে এফআরসিপি করে ঢাকা মেডিকেলের হসপিটালের কার্ডিয়লজিস্ট ছিলেন। এবং তার সামিরার দাদা পাবনার হেমপাথির ডক্টর। এই সামিরা হোসেনের তার বাবা একজন চলচ্চিত্র পরিচালক এবং গীতিকার। তার ছবি এবং গানের জন্য তিন তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছে । কিন্তু সামিরা হোসেন এ জীবনটা। ছিল খুব একাকী,তবুও সে হাসিখুশি ভাবে মানুষের সেবা করে যেত। হাসিমুখে তার ডেস্টিনেশন অনেক মানুষের স্বপ্ন পূরণ করেছে, একজন সাদা মনের মানুষ তিনি। Life এর দুইবার প্রেম এসেছিল ভালোবাসতো পায়নি।
কাউন্সিলর সামিরা রোগী অ্যাভনের ভিডিও ক্লিপ গুলা ভাল করে দেখ ।
কাউন্সিলর সামিরা রোগী অ্যাভনের কেবিনে ঢুকলো।
পিছনে নার্স।
সামিরাঃ হ্যালো, আমার নাম সামিরা হোসেন। আমি আপনার কাউন্সিলর। এখন থেকে আমি আপনাকে কাউন্সেলিং করবো যতক্ষণ না পর্যন্ত আপনি সুস্থ না হচ্ছেন।
অ্যাভন ঃ এত সুন্দরী, কাউন্সিলর। আসলে এই যুগে সুন্দরী সুন্দরী মেয়েদের দেখলে ছেলেরা আকৃষ্ট হত।
সামিরাঃ আপনি তো দেখছি ভালই philosopher,আপনার বয়স। 36 এই বয়সে বিয়ে করে। সংসারিক দায়িত্ব পালন করতেন, বা কোন কর্পোরেট অফিসের দায়িত্ববান কর্মকর্তা থাকা উচিত ছিল। সময় গুলো এভাবে নষ্ট করলেন কেন?
আমি আমার অনেক ছোট কিন্তু এই ছোট আমি আমার Destination reach করতে পেরেছি ।
অ্যাভন ঃ আমার ইচ্ছে।
সামিরা ঃ আপনার case history. আমি পড়েছি। তারপর diagnosis জন্য আপনার মুখ থেকে। শুনতে হবে। আপনি আপনার ছোটবেলা থেকে এই পর্যন্ত সব ঘটনা খুলে বলবেন। কোন দ্বিধাবোধ করবেন না। যাতে আপনার। problem টা detect হবে তো ।


( চলবে )
বিষয়শ্রেণী: গল্প
ব্লগটি ৬৭ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ২৮/০৩/২০২১

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

  • very nice
  • শ.ম. শহীদ ০৫/০৪/২০২১
    খুব সুন্দর হয়েছে। শুভেচ্ছা।
  • Presentation is well.
  • nicely portrayed......
  • ফয়জুল মহী ২৮/০৩/২০২১
    বৈচিত্রময় ও চিন্তাশীল উপস্থাপন ।
 
Quantcast