www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

হাসি কান্না আর ভালবাসা-৫

গোল মিটিং বসেছে। কবির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কবি বেশি সত্য কথা বলছে। বেশি সত্য কথা বলছে। ওকে থামাতে হবে। যেমন করে হোক ওকে থামাতে হবে। পিটিয়ে হোক, কাউকে লেলিয়ে দিয়ে হোক, ওকে থামাতে হবে।
তারা হীরাকে সব সময় হিংসা করেছে। তারার বর একজন ডাক্তার। ছেলে একজন ইঞ্জিনিয়ার। মেয়ে একজন মডেল। তারা ইংল্যান্ডে থাকে। প্রতি বছর বাংলাদেশে আছে। তাঁর তিন ভাই তাকে নিয়ে এমন তোয়াজ করে, যেন কোথাকার কোন লাট সাহেব এসেছে। এদিকে, হীরার বর একটা বোকা মানুষ।সারাজীবন সৎ চলেছে। তাই উন্নতি করতে পারে নাই। ছেলে নকল করতে পারে না বলে,পরীক্ষায় পাস করতে পারে না।তারপরেও তারা হীরাকে হিংসা করে।
সিহাব টিয়ার দিকে তাকিয়ে রয়েছে। এটা ওর ভাবী। এত সুন্দর মেয়ে রবি ভাইয়ের বউ। রবি ভাইয়ের এতো ভাগ্য। সামান্য একটা চাকুরি করে তাঁর জীবনে এতো সুন্দর একটা চমৎকার মেয়ে আসতে পারে। এতো সুন্দর করে কথা বলে, এতো গুনের অধিকারী। সিহাব তাঁর মায়ের দিকে একবার তাকাল। হ্যা, এই মানুষটার জন্য সিহাব আজ একা রয়ে গেছে। তাঁর জীবনে একজন এসেছিল। তাঁর ভালবাসা সায়না। তাঁর মায়ের কালো মেয়ে পছন্দ নয়। আজ সিহাব একা। খুব একা। বড় একা। রাতগুলো বড় একা লাগে। বড় কষ্ট লাগে।
ফরিদ আজ প্রথম মিশুর সাথে নাচল। মিশুর দুলাভাই অনেক দুষ্টু। সে এমন একটা পরিবেশ সৃষ্টি করেছে যে তাকে নাচতে হয়েছে। ফরিদের খুব ভাল লাগছে। মিশুকে আজ খুব সুন্দর লাগছে। মনে হচ্ছে আকাশ থেকে নেমে আশা পরী। আজ পূর্ণিমা। আজ বলে পরীরা আকাশ থেকে নেমে আসে। তারা সুন্দর মানুষের সাথে আনন্দ করে। আজ বোধহয় আকাশ থেকে মিশু নেমে ফরিদ নামক সুন্দর মানুষের সাথে নাচছে। মিশুর দুলাভাই আসলেই দুষ্টু।
বিষয়শ্রেণী: গল্প
ব্লগটি ৬৩৩ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ৩০/১০/২০১৬

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

 
Quantcast