www.tarunyo.com

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

স্বপ্নীল রংগন

এই পথ দিয়া হাইটা যাইতো একটি চঞ্চলা মাইয়্যা
নাম তাহার স্বপ্নীল, এইড্যা কী নাম হইলো
এই মনস্তাব কেউ লইয়েন না। যদিও তাহার
আরেকটি নাম আছে
মাইয়ার বাড়ি কোথায় কে জানে?
কয়দিন হইলো হাইটা যায়, ক্যা রাখে কার খবর!!
এলাকার নাম ভাষানচর, দুষ্টু পোলাপাইন
নিত্য রাস্তা হাইটা গুইড়া বেড়ায়।

আহরে আমার চলার মতো এইখানে কোনো
সহপাঠী নাই, মাঝে মাঝে দুই এক কদম
হাইটা সামন্য পথখানি আইয়্যা পরি।
মাইয়ার ওমা কী হাসি খুশি হেতি যেইভাবে লইলো
ওইসব পোলাপাইন নজর লাইগগা গেছে।

আমি ও সেদিন উপস্থিত ছিলাম কী কমু
কী মোড়মুড়ি কী যেই দশা
কে জানে অত পর স্থান টি মসজিদ পাশের পূর্ব ভাষানচর খলিফা বাড়ির সামনে
বান্ডারি বাড়ি, তাহার চুলগুলো বড় বড় রাখে
দেইখ্যা হেই ব্যাডার নাম বান্ডারি, তার কফ কাশির ওসুক আছে , চুল বড় রাখার কারন একটাই কারন।

তারপর কে জানে কী কইমু ক্যারে দেইখ্যা
ওখানে তিনটি মাইয়্যা ছিল স্বপ্নীল,বর্নীল,আদিল
তিনটি ওরা ওই বান্ডারি বাড়ি ঢুইকা গেলে।
কী কে জানে কী আছে ওগো মনে
আমি দ্যাখে না দেখার মতো দ্যাখলাম না।
ওরা ফলো করলো , আমাকে বলল শিপু নামক একটি ছেলে দেহেন কাকা ওরা কই যাইতেছে, এই বাসাতো দিন
কোনো লোক থাহেনা আর ছোট্ট বাড়ি
আমি বললাম হয়তো কোনো দরকার আছ।

আমারে কয় না না,, আমার যেই সেই স্থান
অতিক্রম করিলাম হুট করে বেড় হয় দিল দৌড়
আর খল্লাইয়া হাসতেছে
এমনই বাটপার পোলাপাইন আবার ভাঙা
বেড়ার খোঁচা.....
আমি আবার রোডে ঘাটে কেউ ডিস্টাব
করা দের একটু জ্ঞান দেই কথার মাধ্যমে বুঝাই।
কেউ মানে কেউ মানে না উল্টা আরো আরে চ্যারে কথা কয়। যাক আমি চুপ কইরা থাকি।
একদিন এই রোডে নতুন আসার কাহিনী
খুঁজে বের করতে ছুইটা পইরা লাগল।


তারপর...ওরা ওই মাইয়্যারে মাঝে স্বপ্নীল টি
বেক্কে পছন্দ করল।
এমনি কী পিছন ঘুর ঘুর করতে শুরু করল।।
এমন করে ও মন করে ভাব ভঙ্গিমা আর অভাব নাই।
আমার এসব জানার দরকার নাই আগেই
জানি ওরা খুব দুষ্টু প্রকৃতির লোক কিছু একটা
কইরা ছাড়ব।
কিন্তু কিছু ই করতে পারলেনা এই করে ওই করে
বিশ্ব প্রেমিক নাম করে জেরে দেখে ধইরা পরে
অতপর এর কোন ফয়দা হইল না.....

একদিন আমারে এসব না কইয়্যা লইয়্যা গেল
আমি কী এর কিচাছু জানিনা.....
দেইখ্যা হাসি দিয়ে তাদের সামনে চলতে শুরু করল... এই ঘটনা বুঝতে পাইরা তার আমার
প্রতি এই কিছু একটা মনে করল.....
অতপর জানলাম কী কাহিনী এসব তাদের
অন্য কার কাছে থাইক্যা ।
আমি শুনে ধরে নিছি আমি একটু অন্য প্রকৃতির
এই ছেলে আছিলাম তো তাই তারা
মজা করছিলো...হয়তো ওদের মতো না।

তারপর এমন অনেক গেছে
আমারে দেখলে ভঙ্গ চং করে আমি এসব
প্রতিদিন দেখলে লজ্জা পাইতাম.....
আমি কিছু দিন পর একটা সিদ্ধান্ত নিলাম
ওদের দেখলে আমি হয়তো কোথায় লুকাইয়া
থাকব এই পথ সময় টুকু পরে আবার
আমার মতো আমি চলিব,
একদিন লুকাইতে গিয়া ধরা পইরা গেছি।

আমি কখনো ভালবাসিব না এই কথা খুব
মনে চলি আমি সাধারণ ঘরের একটি সাধারণ ছেলে পড়া শুনা করি । চাকরি বাকরি নাই।
বাপের হোটেল খাই। আর থাকি।
আমারো ভালো লাগে এই সব দৃশ্য
সব ভালো লাগা আপনার করে ডাকলে ও চলেনা
আর ভাবি গ্রাজুয়েজড না হয়ে প্রেম প্রিয় হইমুনা।
তারপর....
বিষয়শ্রেণী: গল্প
ব্লগটি ১০০ বার পঠিত হয়েছে।
প্রকাশের তারিখ: ১৬/০৭/২০১৯

মন্তব্য যোগ করুন

এই লেখার উপর আপনার মন্তব্য জানাতে নিচের ফরমটি ব্যবহার করুন।

Use the following form to leave your comment on this post.

মন্তব্যসমূহ

 
Quantcast